শাওমি মি ব্যান্ড ২ রিভিউ – একটি বাজেট ফ্রেন্ডলি ফিটনেস ট্র্যাকার

শাওমি (Xiaomi) মি ব্যান্ড ১ এর পর ডিসপ্লে সহ নতুন একটি ফিটনেস ট্র্যাকার রিলিজ করেছে। এটি কোন নতুন খবর না। মি ব্যান্ড ২ (Mi Band 2) এ তার পূর্বসূরির অনেক সীমাবদ্ধতা গুলো দূর করা হয়েছে। আবার দামের দিক থেকেও এটি বেশ সস্তা। ভাবছেন এই স্মার্ট ব্যান্ডটি কিনবেন? কিন্তু কোথাও এর বিস্তারিত রিভিউ পাচ্ছেন না? সমস্যা নেই। আজকের রিভিউ টপিক মি ব্যান্ড ২।

শাওমি মি ব্যান্ড ২ রিভিউঃ

চীনা প্রযুক্তি কোম্পানি শাওমি স্মার্টফোন নির্মাণের জন্য যথেষ্ট পরিচিতি পেলেও, এটি আরও অনেক স্মার্ট গেজেট তৈরি করে থাকে। যেগুলো দামে যেমন সস্তা, কোয়ালিটির দিক দিয়েও মানানসই। মি ব্যান্ড ২ তার মধ্যে অন্যতম। এটি মূলত একটি ইলেক্ট্রনিক ব্যান্ড যা ব্যবহারকারীর ফিটনেস সম্পর্কিত দৈনিক কার্যকলাপ গুলো ট্র্যাক করতে পারে। চলুন এর সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেই।

শাওমি মি ব্যান্ড ২ রিভিউ

ফিচারঃ

মি ব্যান্ড ২ একটি ওএলইডি ডিসপ্লে যুক্ত স্মার্ট গেজেট যা Mi Fit অ্যাপ দিয়ে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। কিছু থার্ডপার্টি অ্যাপ এর সাহায্যে এই ব্যান্ডটিকে উইন্ডোজ ফোন থেকেও ব্যবহার করা যাবে। এটিকে সাধারণ ব্যান্ড এর মত আপনার হাতে পড়তে পাড়বেন। এতে রয়েছেঃ

  • একটি ০.৪২ ইঞ্চি ওএলইডি ডিসপ্লে
  • পানি প্রতিরোধী বা Water Resistant
  • ফুট স্টেপ ট্র্যাকিং
  • হৃদ কম্পন বা Heart rate মাপার সেন্সর
  • ডিসটেন্স ট্র্যাকিং বা দূরত্ব মাপার সুবিধা
  • ক্যালোরি বার্নিং এর হিসাব
  • স্লিপ ট্র্যাকিং
  • স্মার্টফোন নোটিফিকেশন
  • ভাইব্রেশন
  • একটি দুর্দান্ত ব্যাটারি

ফিচার লিস্ট দেখে বুঝতেই পারছেন মি ব্যান্ড ২ সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য কতটা কাজে আসতে পারে। আরও একটু ভালভাবে বুঝাতে গেলে কিছু উদাহরণ দিতে হবে। যেমনঃ একজন মানুষের প্রতিদিন ৪০ মিনিট এবং প্রায় ৮০০০ স্টেপস হাঁটা উচিত। আপনার যদি হাঁটার অভ্যাস না থাকে তাহলে প্রথমেই এতোখানি হাঁটা কষ্টকর হবে। এছাড়া ঠিক কত স্টেপস আপনি হাঁটছেন তার হিসাব রাখাও একটি ঝামেলার কাজ। আপনি যদি কোন স্মার্ট ব্যান্ড হাতে পড়ে হাঁটেন, তাহলে এটি আপনাকে একটি আনুমানিক হিসাব দিতে পারবে। শাওমি মি ব্যান্ড ২ এই কাজটিই খুব সুন্দর ভাবে করতে পারে। আপনি কতটুকু হাঁটলেন, কতখানি দূরত অতিক্রম করলেন, আপনার শরীরের কত ক্যালোরি খরচ হল এসবই জানা যাবে এই ব্যান্ডটি দিয়ে। এছাড়া আপনি চাইলে আপনার হার্টরেট বা হৃদ কম্পন এর পরিমাণও জানতে পারবেন এর সাহায্যে। তাছাড়া এই ব্যান্ডটি আপনার ঘুমের পরিমাণ ও কোয়ালিটিও পরিমাপ করতে পারে। তবে আরও একটি ফিচার যা আপনার বেশ কাজে আসবে, সেটি হল স্মার্টফোন নোটিফিকেশন। অর্থাৎ আপনার মোবাইলে কে কল দিচ্ছে বা কে মেসেজ পাঠাল, তা দেখতে আপনার মোবাইল পকেট থেকে বেড় করতে হবে না। মি ব্যান্ড ২ ই আপনাকে নটিফাই করবে।

ডিজাইনঃ

এই ব্যান্ডটি দেখতে অনেক স্মার্ট। আপনাদের মাঝে কেউ সিম্পলিসিটি প্রিফার করে থাকলে তার কাছে এই ব্যান্ডটি অবশ্যই ভালো লাগবে। এছাড়া আপনি চাইলে আলাদা স্ট্র্যাপ্ লাগিয়ে এর আউটলুক পরিবর্তন করতে পারেন।

পারফর্মেন্সঃ

শাওমি মি ব্যান্ড ২ (Xiaomi Mi Band 2) এর পারফর্মেন্স মোটামুটি সন্তোষজনক। আমি নিজে এটি ব্যবহার করেছি। ফুটস্টেপ ট্র্যাকিং ফিচারটি বেশ কাজের এবং এটি মোটামুটি নির্ভুল হিসাবই দিতে পারে। তবে দূরত্ব মাপার বিষয়টা নিয়ে আমার একটু সন্দেহ আছে। কিন্তু এটিও সন্তোষ জনক। কারণ বাজারের কোন স্মার্ট ব্যান্ডই আপনাকে একেবারে নির্ভুল হিসাব দিতে পারবে না। ক্যালোরি বার্ন এর বিষয়টা আগেই বলেছি। এটি আপনাকে আনুমানিক একটি ক্যালোরি খরচের পরিমাণ দেখাবে। তবে মি ব্যান্ড ২ এর সবচেয়ে সেরা দিক হল ব্যাটারি লাইফ। এক চার্জে এটি ৪৮ ঘণ্টা কাজ করতে পারে। আর যদি ব্যবহার না করেন, তাহলে ২০-৩০ দিন পর্যন্ত চার্জ থাকবে। যেমন গত ৫ দিনে আমি শুধু বাসার বাহিরে গেলে এটি ব্যবহার করেছি। ৫ দিন আগে ফুল চার্জ দেয়া ছিল। এখন এর অবশিষ্ট চার্জের পরিমাণ ৯৭%। অর্থাৎ এর ব্যাটারি পারফর্মেন্স সত্যিই অসাধারণ। যদি একবারে বলতে হয়, তাহলে বলব মি ব্যান্ড ২ এর পারফর্মেন্স বেশ ভালো।

তবে একটি জিনিস আপনার কাছে সন্তোষজনক নাও হতে পারে। সেটি হল হার্টরেট। আমি যতবার আমার হার্টরেট চেক করেছি, মোটামুটি সঠিক ভ্যালু পেয়েছি। তবে কোন কোন রিভিউয়ারের মতে এটি মাঝে মাঝে কিছুটা ভুল ভ্যালু দেখায়। যেমন আপনার হার্টরেট ৯৭। মি ব্যান্ড ২ আপনাকে হয়তো ৯৪-১০০ এর মধ্যে একটি ভ্যালু দেখাতে পারে। যাইহোক, এটিও আমার কাছে বড় কোন বিষয় মনে হয়নি। যেটা আমার কাছে খারাপ লেগেছে, সেটা হলঃ এটি স্বয়ংক্রিয় ভাবে আপনার হার্টরেট মাপতে পারে না। আপনাকে ম্যানুয়ালি মাপতে হবে। এতে করে রেগুলার যারা ব্যায়াম করেন তাদের একটু অসুবিধা হতে পারে। যেমনঃ জগিং করার সময় আপনার হার্টরেট কত ছিল এটা আপনি জানতে পারবেননা, যদি ম্যানুয়ালি না মাপেন।

আরও একটি বিষয় হল এর পানি প্রতিরোধী ক্ষমতা। বাহিরে প্রচণ্ড বৃষ্টি হচ্ছে। এমতাবস্থায় আপনি মি ব্যান্ড ২ পড়ে বাহিরে গিয়ে ভিজলেও এর তেমন একটা ক্ষতি হওয়ার আশংকা নেই। তবে এটি, সাঁতারের জন্য আদর্শ না। হ্যা, হয়তো ১০/১৫ মিনিট এটি পানির নিচে নিজেকে সুরক্ষিত রাখতেও পারে। তারপরেও এক্ষেত্রে সাবধান হওয়াই বেশি বুদ্ধিমানের কাজ।

দামঃ

দামের দিক থেকে এটি বেশ সস্তা। সাধারণ ব্যবহারকারীরা খুব সহজেই এটি কিনতে পারেন। অফিসিয়ালি এর দাম মাত্র ২১০০ টাকা। কিছু কিছু ইকমার্স সাইটে এর মুল্য ১৬৯৯ টাকা থেকে ১৯৯৯ টাকার মধ্যে।

শেষ কথাঃ

অল্প বাজেটে শাওমি মি ব্যান্ড ২ একটি চমৎকার স্মার্ট ব্যান্ড। আমি কখনোই বলবনা এটি একটি পারফেক্ট স্মার্ট গেজেট। আপনি যদি আরও উন্নত ফিচারের ব্যান্ড ব্যবহার করতে চান তাহলে, কোন দামি স্মার্ট ব্যান্ডের দিকে ঝুঁকতে পারেন। আপনি যদি শুধু মাত্র সাধারণ ব্যবহারকারি হয়ে থাকেন এবং কম বাজেটে একটি ভালো স্মার্ট ব্যান্ড চান, তাহলে মি ব্যান্ড ২ কিনতে পারেন।

শাওমি মি ব্যান্ড ২ স্কোর
mi band 2

Product Name: শাওমি মি ব্যান্ড ২

Offer price: 2100

Currency: BDT

Availability: InStock

  • ফিচার - 6/10
    6/10
  • ডিজাইন - 8/10
    8/10
  • পারফর্মেন্স - 7/10
    7/10
  • দাম - 9/10
    9/10

রায়ঃ

কম বাজেটে বেসিক ফিচারসহ ভালো ফিটনেস ট্র্যাকার চাইলে শাওমি মি ব্যান্ড ২ কিনতে পারেন।

Overall
7.5/10
7.5/10

Pros

ভালো দিকঃ চমৎকার ব্যাটারি লাইফ। বাজেট ফ্রেন্ডলি ও প্রয়োজনীয় ফিচার।

Cons

খারাপ দিকঃ এটি খুব বেশি নির্ভরযোগ্য ফিটনেস ট্র্যাকার না।