সেলফি এলবো রোগটি কি ও এর প্রতিকার

- বিজ্ঞাপন -

বন্ধুর বিয়ে! রেস্টুরেন্টে প্রিয়জন বা বন্ধুদের সাথে আড্ডা! অথবা বৃষ্টির দিনে নিজের হাতে করা কিছু রেসিপি করেছেন! এসব আনন্দঘন মুহূর্তে সেলফি তোলা চাই চাই। তাছাড়া, ফেসবুক, টুইটার বা ইন্সট্রাগাম সেলফি শেয়ার ছাড়া তো জমেই না। এসব কারণে সেলফি তোলা ও শেয়ার করাটা খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আপনি যেই বয়সেরই হন না কেন, ১৮-৬০ বছর বয়সী সবার কাছে এটি খুব প্রাধান্য পাচ্ছে। তবে আতঙ্কের বিষয় হল, যারা বেশি বেশি সেলফি তোলেন বা বলতে গেলে যারা সেলফিবাজ নেশায় আক্রান্ত তারা একটি বিশেষ রোগে ভুগতে পারেন। রোগটির নাম হল “সেলফি এলবো”। আজ আমি আপনাদের বলবো এই রোগটি ও এর প্রতিকার সম্পর্কে।

জেনে নিন সেলফি এলবো রোগ ও প্রতিকার সম্পর্কে:

আসলে ভয় পেয়ে গেলেন কি একটু? ঘাবড়ে যাওয়ার কিছু নেই। এটি তেমন মারাত্মক তেমন রোগ নয়। আসুন জেনে নেই এর বিস্তারিত।

সেলফি এলবো কি?

এই রোগটি তেমন জটিল না হলেও এটি ধীরে ধীরে এমন অবস্থায় পোঁছাতে পারে যে, আপনাকে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, এই রোগটি মূলত টেনিস এলবো বা গলফার এলবোর রোগ। এটি হলে যে হাত দিয়ে বেশি বা প্রায়শ সেলফি তোলা হয়, সেই হাতের কনুইয়ে ব্যথা হতে থাকে। যুক্তরাষ্ট্রের স্পোর্টস মেডিসিন বিশেষজ্ঞ জর্ডান মেটজেল বলেন, অতিরিক্ত সেলফি তুললে সেলফি এলবো হতে পারে। কারণ, পেশিতে অতিরিক্ত চাপের ফলে প্রদাহ সৃষ্টি হয়েই এই রোগের উৎপত্তি।

প্রতিকার:

- বিজ্ঞাপন -

এই রোগ নিরাময়ের জন্য কিছু উপায় বলেছেন।

  • হাতের কনুইয়ে ব্যথা অনুভূত হলে বরফ লাগানো যেতে পারে।
  • হাতের কিছু ব্যায়াম করা যেতে পারে।
  • সেলফি-স্টিক ব্যাবহার করেও এই রোগ থেকে বাঁচা যেতে পারে।

আশা করি, আর্টিকেলটি আপনাকে সেলফি এলবো রোগ সম্পর্কে অবগত করাতে পেরেছে। আমাদের আরো আর্টিকেল পেতে সাথেই থাকুন।

- বিজ্ঞাপন -